Indian Prime Time
True News only ....

স্বামী রূপে গাছকে বেছে নিলেন এই রমণী

- Sponsored -

- Sponsored -

- Sponsored -

- Sponsored -

ADVERTISMENT

ADVERTISMENT

ব্যুরো নিউজঃ ইংল্যান্ডঃ বিবাহিত যেকোনো মানূষই তাদের বিবাহবার্ষিকী পালন করতে পারেন তাতে আশ্চর্যের কিছুই নেই। কিন্তু এই বিবাহবার্ষিকী সম্পূর্ণ আলাদা।

বছর আটত্রিশের কেট কানিংহাম ইংল্যান্ডের লিভারপুরের বাসিন্দা। সম্প্রতি কেট তার তার স্বামীর সাথে বিবাহবার্ষিকী পালন করলেন। আর কেটের স্বামী আর পাঁচ জনের মতো মানুষ নন। তিনি একটি এলডার গাছ। তার এই গাছ-স্বামীর বাসস্থান সেফটনের রিমরোজ ভ্যালি কান্ট্রি পার্কে।

কিন্তু তার স্বামী গাছ কেন এই প্রশ্ন মনে আসতেই পারে? তাই চলুন জেনে নেওয়া যাক্ এই ঘটনার পেছেনে আসল রহস্যটা কি!!

- Sponsored -

- Sponsored -

কেটের এক বয়ফ্রেন্ড সহ দু’জন সন্তান আছে। আসলে এই রিমরোজ ভ্যালি কান্ট্রি পার্কের গাছ কেটে এখান দিয়ে একটি বাইপাস তৈরির পরিকল্পনা হচ্ছে। তবে সেখানকার বাসিন্দারা এই পার্ক ধ্বংস করে রাস্তা বানাতে একদম রাজি নন। তাই তারা নানা ভাবে আন্দোলন করেছেন। আর কেট পার্কের একটি এলডার গাছকে বিয়ে করে সেই আন্দোলনকে আরো এক ধাপ এগিয়ে নিয়ে গেছেন। সে বিয়ে করা্র পাশাপাশি নিজের পদবী পরিবর্তন করে কেট এলডার করে নিয়েছেন।

তবে কেটের গাছকে বিয়ে করার এই পরিকল্পনা মেক্সিকোর এক মহিলার কথা জানতে পারার পর মাথায় আসে। প্রসঙ্গত সবুজ বাঁচানোর লড়াইয়ের সৈনিক সেই মহিলাও একটি গাছকে বিয়ে করেছিলেন।

কেট জানিয়েছেন, “তার ১৫ বছর বয়সী ছেলে এই বৈবাহিক সম্পর্ক নিয়ে কিছুটা ইতস্তত বোধ করে। তবে কেট নিজের সিদ্ধান্তের জন্য গর্বিত। কেট মনে করেন তার ছেলেও একদিন এই বিয়ের মাহাত্ম্য বুঝতে পারবে। কেট দিনে পাঁচ বার ওই পার্কে তার স্বামীকে দেখতে যান”।

কেট আশা করছেন, “এই বিয়ে সবুজ বাঁচানোর আন্দোলনকে অনেক দূর এগিয়ে নিয়ে যাবে। এই পৃথিবী খুব সুন্দর একে নষ্ট হতে দেওয়া উচিত নয়। এখন গোটা বিশ্ব জুড়ে আন্দোলন গড়ে তোলার সময় হয়েছে”।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

- Sponsored -

- Sponsored -

- Sponsored

- Sponsored