Indian Prime Time
True News only ....

বজ্রাঘাতে মৃতদের পরিবারকে আর্থিক সাহায্যের ঘোষণা কেন্দ্রীয় সরকার সহ রাজ্য সরকারের

- Sponsored -

- Sponsored -

ADVERTISMENT

ADVERTISMENT

অনুপ চট্টোপাধ্যায়ঃ কলকাতাঃ প্রায় প্রতিদিন বিকেলের পর থেকে কলকাতা সহ রাজ্যের একাধিক জেলায় বজ্রবিদ্যুত্‍ সহ ঝড়-বৃষ্টিপাত হচ্ছে। বৃষ্টির পরিমাণ খুব বেশী না হলেও প্রচুর পরিমাণে বজ্রপাত হচ্ছে। আর গতকাল রাজ্যের পাঁচ জেলায় বজ্রপাতে মৃত্যু হয়েছে মোট ২৭ জনের।

এদের মধ্যে নদীয়া মৃত্যু হয়েছে ১ জনের। বাঁকুড়ায় মৃত্যু হয়েছে ২ জনের। হুগলীতে মৃত্যু হয়েছে ১১ জনের। মুর্শিদাবাদে মৃত্যু হয়েছে ৯ জনের। পূর্ব মেদিনীপুরে মৃত্যু হয়েছে ২ জনের ও পশ্চিম মেদিনীপু্রে মৃত্যু হয়েছে ২ জনের।

বজ্রাঘাতে মৃত্যুর এই ঘটনায় খোদ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী, কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ সহ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় শোকপ্রকাশ করেছেন। এর পাশাপাশি কেন্দ্রীয় সরকার এবং রাজ্য সরকার মৃতদের পরিবারকে ২ লক্ষ টাকা করে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছেন।

- Sponsored -

- Sponsored -

আজ বজ্রপাতে মৃত ব্যক্তিদের পরিবারের সাথে তৃণমূল কংগ্রেসের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় দেখা করতে যাবেন।

প্রসঙ্গত, সাধারণত কিউমুলোনিম্বাস মেঘ থেকে বজ্রপাত ও বৃষ্টিপাত হয়। বাতাসে জলীয় বাষ্পের আধিক্য এবং দূষণের মাত্রার জেরে তাপমাত্রার বৃদ্ধির ফলে বজ্রগর্ভ মেঘ তৈরী হচ্ছে। এর জেরে বিগত কয়েক বছর ধরে এপ্রিল-মে মাসে বাংলায় এই বজ্রগর্ভ মেঘের পরিমাণ বেড়েছে। আর তার ফলেই প্রায় প্রতিদিন বিকেলের পরে বজ্রবিদ্যুত্‍ সহ ঝড়-বৃষ্টিপাত শুরু হচ্ছে।

এই বিষয়ে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের অ্যাটমসফেরিক সায়েন্স বিভাগের অধ্যাপক সুব্রত মিদ্যা জানিয়েছেন, ”কিউমুলোনিম্বাস বা বজ্রগর্ভ মেঘ থেকেই বজ্রপাত হয়। পরিবেশে দূষণের মাত্রা বেড়ে গিয়ে তাপমাত্রাও আগের থেকে অনেক বেশী পরিমাণ বেড়ে যাওয়ায় বজ্রপাতের পরিমাণ অনেকটাই বেড়ে গিয়েছে। এই বজ্রপাত সাধারণত অল্প জায়গায় মধ্যে হচ্ছে অর্থাত্‍ ক্লাউড টু গ্রাউন্ড অথবা মেঘ থেকে মাটির দিকে হচ্ছে”।

- Sponsored -

- Sponsored -

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

- Sponsored -

- Sponsored -

- Sponsored

- Sponsored