Indian Prime Time
True News only ....

চরম বিপদে অলিম্পিক্সে পদকজয়ী কুস্তিগিররা

- sponsored -

- sponsored -

- Sponsored -

- Sponsored -

নিজস্ব সংবাদদাতাঃ নয়া দিল্লিঃ স্পোর্টস অথরিটি অব ইন্ডিয়ার সোনিপত কেন্দ্রে কুস্তিগিরদের অবস্থা খুবই শোচনীয়। কুস্তির জন্য যে অনুশীলন কেন্দ্র রয়েছে সেটিকে নতুন ভাবে সাজানোর কাজ চলায় এখন যেখানে অনুশীলন চলছে সেখানে অসহনীয় পরিস্থিতি তৈরী হয়েছে। প্রচণ্ড গরমে কুস্তিগিরদের নাজেহাল অবস্থা। 

প্রায় ৭০ জন ক্রীড়াবিদ সাই কেন্দ্রে অনুশীলন করেন। অলিম্পিক্সে ব্রোঞ্জজয়ী বজরং পুনিয়া ও সম্প্রতি র‌্যাঙ্কিং সিরিজে সোনাজয়ী আমনা সেহরাবতরা রয়েছেন। কখনো কখনো টোকিয়োয় রুপোজয়ী রবি দাহিয়া, জিতেন্দ্র কিনহা এবং দীপক পুনিয়ারাও চলে আসেন।

এছাড়া দেশের প্রথম সারির ফ্রিস্টাইল ও গ্রেকো-রোমান কুস্তিগিররাও রয়েছেন। এখন দিল্লি এবং আশেপাশের এলাকায় তাপমাত্রা ৪৫ ডিগ্রির কাছাকাছি। হলের ভিতরেও প্রায় ৪০ ডিগ্রী তাপমাত্রা রয়েছে। বাতানুকূল যন্ত্র থাকলেও হলের উচ্চতা এতোটাই যে সেটি ভালো ভাবে কাজ করে না।  

- Sponsored -

- Sponsored -

এক কোচের কথায়, “আমাদের সাধারণত ২৩ ডিগ্রী থেকে ২৪ ডিগ্রীর মধ্যে অনুশীলন করা উচিত। এই পরিবেশে ছেলেদের অনুশীলন করিয়ে ওদের চোটের দিকে ঠেলে দিচ্ছি। কমনওয়েলথ গেমস সামনেই। এটা মোটেই আদর্শ পরিবেশ নয়। যা গরম হচ্ছে তাতে অনুশীলন চালানোই অসম্ভব।” 

তবে সাইয়ের কার্যনির্বাহী পরিচালক ললিতা শর্মা জানান, “ছ’টি কুলারের ব্যবস্থা করা হয়েছে। এক মাসের মধ্যে কুস্তির হলটি মেরামতের কাজ শেষ হয়ে যাবে।” 

যদিও কুস্তিগিররা খাবার নিয়েও অসন্তুষ্ট। নিয়মিত জুস ও ডাবের জলও পান না। খুব বেশী হলে বিকেলবেলা তরমুজের রস জোটে। এক কুস্তিগির বলেছেন, “তাদের নিয়মিত মুসম্বি এবং বেদানার রস দরকার। বজরং পুনিয়ার মতো কেউ কেউ তাই সাইয়ের খাবার খান না। বাড়ি থেকে খাবার আনান।”  

- Sponsored -

- Sponsored -

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

- Sponsored -

- Sponsored -

- Sponsored

- Sponsored