Indian Prime Time
True News only ....

এবার আফ্রিকাতে দেখা মিলল দুই বামন জিরাফের

- sponsored -

- sponsored -

- Sponsored -

- Sponsored -

ADVERTISMENT

ADVERTISMENT

ব্যুরো নিউজঃ পৃথিবীর লম্বা প্রাণী হিসেবে জিরাফের অবস্থান অন্যতম। সাধারণত জন্মের সময় জিরাফের উচ্চতা ছয় ফুট থাকে। তারপর ধীরে ধীরে বয়স বাড়ার সাথে সাথে জিরাফের উচ্চতা প্রায় ১৯ ফুট পর্যন্ত হয়ে থাকে। কিন্তু আফ্রিকার দুই এলাকায় সাধারণ উচ্চতার চেয়ে অনেকটা কম উচ্চতার দুই জিরাফের খোঁজ পাওয়া গেছে। যাদের একজনের উচ্চতা ৯.৪ ফুট ও আরেকজনের উচ্চতা আরো কম প্রায় ৮.৫ ফুট।

জিরাফ খুব লম্বা হওয়ায় তাদের মুখের দিকে তাকাতে মাথা অনেকটাই হেলাতে হয়। কিন্তু এই দুই জিরাফকে দেখতে গেলে কোনো সমস্যাই হয় না। তাদের একজনের নাম গিমলি এবং অপর আরেকজনের নাম নাইজেল। গিমলি উগান্ডা আর নাইজেল নামিবিয়ায় থাকে।

গিমলি বর্তমানে মার্চিসন ফলস ন্যাশনাল পার্কে ও নাইজেল একটি ব্যক্তিগত ফার্মে আছে।

- Sponsored -

- Sponsored -

‘The New York Times’-এ প্রকাশিত একটি রিপোর্ট অনুযায়ী জানা যায়, “২০১৫ সালে উগান্ডার একটি জাতীয় উদ্যানে জিরাফ কনজারভেশন ফাউন্ডেশনের একজন গবেষক ড. মিশেল ব্রাউনের গিমলির এই উচ্চতা নজরে আসে। তারপর ফের ২০১৮ সালে তাঁর টিম নাইজেলের সন্ধান পান। এবং উচ্চতায় সেই এক ধরনের সমস্যাই নজরে আসে।

এরপর তিনি গবেষণার মাধ্যমে জানিয়েছেন, ওই দুই জিরাফের ডোয়ারফিজম অর্থাৎ জিনগত সমস্যা থাকায় তারা দু’জনেই বামন। এই ডোরারফিজমের সমস্যা প্রায়শই গরু, কুকু এবং মানুষের মধ্যে দেখা যায়”।

এছাড়াও ড.মিশেল জানিয়েছেন যে, “তাদের এই সমস্যার জন্য প্রজননের কাজে বাধা সৃষ্টি হতে পারে। কারণ মহিলা জিরাফদের উচ্চতা কমপক্ষে প্রায় ১৪ ফুট হয়ে থাকে। এমনিতে বয়ঃসন্ধিতে পৌঁছানোর আগেই অনেক জিরাফের মৃ্ত্যু হয় কিন্তু গিমলি ও নাইজেল দু’জনেই সেই সময় পেরিয়ে গিয়েছে। আর বর্তমানে তারা প্রাপ্তবয়স্ক”।

তবে মিশেলের টিম ২০১৭ সালে গিমলিকে দেখে। কিন্তু তারপরে আর তার দেখা পাওয়া যায়নি। আর ২০২০ সালে নাইজেলকে তারা শেষবারের মতো দেখেছিল।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

- Sponsored -

- Sponsored -

- Sponsored

- Sponsored