Indian Prime Time
True News only ....

অভিষেকের সফরের আগেই ধুন্ধুমার পরিস্থিতি ত্রিপুরায়

- sponsored -

- sponsored -

- Sponsored -

- Sponsored -

- Sponsored -

- Sponsored -

নিজস্ব সংবাদদাতাঃ ত্রিপুরাঃ তৃণমূল নেতা অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের ত্রিপুরা সফরের আগেই উত্তপ্ত আগরতলা। অভিষেক ব্যানার্জীর সফর উপলক্ষে তৃণমূল ছাত্রনেতা দেবাংশু ভট্টাচার্য, সুদীপ রাহা, জয়া দত্তরা আগরতলা বিমানবন্দরের কাছে পতাকা লাগাচ্ছিলেন। আর তখনই পুলিশের সাথে তৃণমূল কর্মীদের পতাকা লাগানো নিয়ে বিতর্ক শুরু হয়। তৃণমূলের সব ফ্লেক্স, ফেস্টুন সহ সব পতাকাই ছিঁড়ে দেওয়া হয়েছে। এমনকি পুলিশের সাথে ধস্তাধস্তিও হয়।

এই ঘটনায় বিজেপির বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছে। অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় ত্রিপুরেশ্বরী মন্দিরে পুজো দিতে যাওয়ার সময় অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে ত্রিপুরেশ্বরী মন্দির চত্বরে কালো পতাকা দেখিয়ে ‘গো ব্যাক’ শ্লোগান তোলা হয়। এরপরই তৃণমূল কর্মীরা পাল্টা ‘খেলা হবে’ শ্লোগান তোলে।

- Sponsored -

- Sponsored -

সমস্ত আচরণের বিরুদ্ধে তোপ এনে দেবাংশু ভট্টাচার্য বলেছেন, “আমরা নিয়ম মেনে প্রায় ১৫ জন তৃণমূলের ঝান্ডা লাগাতে যাচ্ছিলাম। আমাদের সেখানে একটা বিশৃঙ্খল বিজেপি বাহিনী এসে আটকায়। আমাদের উদ্দেশ্যে শ্লোগানিং করে। এটা কারোর কেনা জায়গা না এখানে যে কেউ পতাকা লাগাতে পারে। কোভিড নিয়ম ভঙ্গ করে একশো থেকে দেড়শো জন লোক নিয়ে আমাদের আটকানোর চেষ্টা করে। পুলিশ তাদেরকে কিছুই বলে না। পুলিশ নীরব দর্শকের ভূমিকা পালন করে। অথচ পুলিশ আমাদেরকে আটকায়। এটাই বর্তমানে ত্রিপুরার অবস্থা”।

তিনি এও জানিয়েছেন যে, “২০২৩ এ হারের ভয়ে এই কাজ বিজেপির। ২০২৩ এ পরিবর্তন আসবেই”। আজ তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের সাথে ব্রাত্য বসু, মলয় ঘটক, ঋতব্রত বন্দ্যোপাধ্যায়ও উপস্থিত হয়েছেন।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

- Sponsored -

- Sponsored -

- Sponsored

- Sponsored