Indian Prime Time
True News only ....

দুধের সাথে মিছরির গুণাগুণ

- sponsored -

- sponsored -

- Sponsored -

- Sponsored -

- Sponsored -

- Sponsored -

মিনাক্ষী দাসঃ প্রায়শই শরীরে পরিশ্রম বা শারীরিক নানা অসুবিধার জন্য ক্লান্তিবোধ আসে৷ তাই অনেকেই এই ক্লান্তি থেকে মুক্তির জন্য মিছরির জল পান করে থাকে। কিন্তু এই মিছরির সাথে দুধ পান করলে খুব ভালো ফলাফল পাওয়া যায়। যা খুবই স্বাস্থ্যকর।

দুধ অত্যন্ত উপকারী একটি পানীয়। যার মধ্যে চর্বি, শক্তি, জিঙ্ক, প্রোটিন, আয়োডিন, নিয়াসিন, ফসফরাস, ক্যালশিয়াম, পটাশিয়াম, ম্যাগনেশিয়াম, রাইবোফ্লাভিন, খনিজ পদার্থ ও ভিটামিন A, D, E, K এর পুষ্টিগুণ আছে। তাই এটি একটি আদর্শ সুষম আহার। তাই এই দুধের মধ্যে মিছরি সংযোগ করলে অ্যান্টাসিড এজেন্ট রূপে কাজ করে এবং বহু গুরুতর রোগের চিকিৎসায় ব্যবহৃত হয়।

এবার জেনে নিই গরম দুধের সাথে মিছরির গুণাগুণ
১) প্রতিদিন রাতে দুধ-মিছরির মিশ্রণ ঘুমাতে যাওয়ার আগে দুধ পান করলে অনিদ্রা দূর হবে।

২) দুধ-মিছরির মিশ্রণ ত্বকের উজ্জ্বলতা এবং শরীরে রক্তের সঞ্চালন বৃদ্ধি করতে কাজে লাগে।

- Sponsored -

- Sponsored -

৩) দুধ-মিছরির মিশ্রণে জাফরান মিশিয়ে পান করলে শরীরে এনার্জি অাসে। রক্তের মধ্যে হিমোগ্লোবিনের পরিমাণ বেড়ে যায়।

৪) দুধ-মিছরির মিশ্রণ মেজাজ নিয়ন্ত্রণ করার পাশাপাশি মনকে শান্ত রাখতে ও বিভিন্ন স্ট্রেস থেকে মুক্তি ঘটাতে একান্ত সাহায্য করে।

৫) যারা সারাক্ষণ ল্যাপটপ, মোবাইল অথবা কম্পিউটারে কাজ করে তাদের দৃষ্টিশক্তি সঠিক রাখার জন্য দুধ-মিছরির মিশ্রণ ভীষণ উপকারী।

৬) দুধ-মিছরির মিশ্রণ শীতকালে ঠান্ডা লাগার হাত থেকেও রক্ষা করে। এছাড়া জ্বর, সর্দি-কাশি সহ বিভিন্ন শারীরিক সমস্যা ও যন্ত্রণার থেকেও উপশম ঘটায়।

৭)  দুধ-মিছরির মিশ্রণ খাবার হজম করতে খুব সহায়তা করে। এমনকি অ্যাসিডিটি, কোষ্ঠকাঠিন্য, বদহজমের মতো বিভিন্ন রকম কষ্টকর অসুবিধা থেকে মুক্তি ঘটায়।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

- Sponsored -

- Sponsored -

- Sponsored

- Sponsored