Indian Prime Time
True News only ....

গঙ্গাসাগর মেলা কেন্দ্রের স্বীকৃতি না পাওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করলেন মুখ্যমন্ত্রী

- Sponsored -

- Sponsored -

ADVERTISMENT

ADVERTISMENT

পিঙ্কি পালঃ দক্ষিণ চব্বিশ পরগণাঃ আজ বেলা ১টা নাগাদ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সাগরে হেলিপ্যাডে পৌঁছে বেশ কয়েকটি প্রকল্পের উদ্বোধন করেন। এরপর নামখানায় বক্তৃতা দেন। ওই বক্তৃতায় গঙ্গাসাগর মেলার সাথে কুম্ভমেলার তুলনা টেনে কেন্দ্রের তীব্র সমালোচনা করলেন।

এদিন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কেন্দ্রের বিরুদ্ধে সুর চড়িয়ে জানান, “কুম্ভমেলায় কেন্দ্র সাহায্য দেয়। গঙ্গাসাগর মেলা কুম্ভ মেলার থেকে বড়ো মেলা। পূর্ণার্থীদের এই মেলায় জল পেরিয়ে আসতে হয়। গঙ্গাসাগর মেলাকে কেন্দ্র স্বীকৃতি দিল না কেন জানি না। কেন্দ্র একটা টাকাও দেয় না। সবটাই আমরা করি। অথচ কেন্দ্র কুম্ভ মেলাকে টাকা দেয়।”

এছাড়া বলেন, “আমি একসময় গঙ্গাসাগর আসতাম। দেখতাম কিছুই নেই। ছোটোবেলায় শুনতাম সব তীর্থ বারবার গঙ্গাসাগর একবার। এখন সবাই বলে সব তীর্থ একবার গঙ্গাসাগর বারবার। প্রতি বছরের ন্যায় চলতি বছর মেলার প্রাঙ্গণকে আলোর বর্ণমালায় সাজানো হয়েছে।” পাশাপাশি এও বলেছেন, “আজ নামখানা, পাথর প্রতিমার সাতশো কোটি টাকা প্রকল্পের উদ্বোধন হবে।

- Sponsored -

- Sponsored -

আপাতত সাগর ও তার আশেপাশের প্রায় ১৬০ কোটি টাকা প্রকল্পের উদ্বোধন হয়েছে। ইতিমধ্যেই আমি মন্ত্রীদের দায়িত্ব ভাগ করে দিয়েছি। ৯ থেকে ১৫ তারিখ অবধি সবাইকে পাঁচ লক্ষ টাকা করে বীমার সুবিধা দেওয়া হয়েছে। তীর্থ কর মুকুব করা হয়েছে।”

প্রসঙ্গত, গঙ্গাসাগর মেলার শুরু হওয়ার আগে প্রত্যেকবারই মুখ্যমন্ত্রী কপিল মুনি মন্দিরে পূজো দেন। রাতে গঙ্গাসাগর থাকার কথা। আগামীকাল গঙ্গাসাগর থেকে জয়নগরের উদ্দেশ্যে রওনা দেবেন। এরপর জয়নগরে সরকারী পরিষেবা প্রদান অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে ওই দিনই কলকাতায় ফেরার কথা।

- Sponsored -

- Sponsored -

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

- Sponsored -

- Sponsored -

- Sponsored

- Sponsored