Indian Prime Time
True News only ....

ট্রেনের মধ্যে ফোন, ল্যাপটপে আর চার্জ দেওয়া যাবে না

- sponsored -

- sponsored -

ADVERTISMENT

ADVERTISMENT

- Sponsored -

- Sponsored -

নিজস্ব সংবাদদাতাঃ নয়া দিল্লিঃ মোবাইল বা ল্যাপটপ ঘরে হোক বা বাইরে প্রায় প্রত্যেক মানুষের নিত্য প্রয়োজনীয় সঙ্গী হয়ে থাকে। আর দূরে কোথাও যাওয়ার ক্ষেত্রে দূরপাল্লার প্রায় সব ট্রেনেই মোবাইল ও ল্যাপটপে চার্জ দেওয়ার সুবিধা থাকে। কিন্তু এবার থেকে ভারতীয় রেলের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আর রাত ১১ টা থেকে ভোর ৫ টার মধ্যে ট্রেন যাত্রার সময় মোবাইল এবং ল্যাপটপে চার্জ দেওয়া যাবে না।

ট্রেনে অগ্নিকাণ্ডের সমস্যা দূর করতেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।
দক্ষিণ রেলের সিপিআরও বি গুগানেশন সংবাদসংস্থাকে বলেছেন, “এটা নতুন কোনো নির্দেশ নয়। বরং এর মাধ্যমে রেল বোর্ড পুরানো নির্দেশ ফের জনসমক্ষে আনছে। ১০১৪ সালে ব্যাঙ্গালোর-হজুর সাহিব নান্দেড় এক্সপ্রেসে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনার ঠিক পরেই রেলওয়ের সুরক্ষা কমিটি রাত ১১ টা থেকে ভোর ৫ টা পর্যন্ত চার্জিং পোর্ট বন্ধ রাখার সুপারিশ করেছিল।

- Sponsored -

- Sponsored -

প্রসঙ্গত, গত ২০ শে মার্চ উত্তরপ্রদেশের গাজিয়াবাদ স্টেশনে শতাব্দী এক্সপ্রেসের জেনারেটর কারে আগুন লেগে যায়। এছাড়া সাম্প্রতিক সময়ে ট্রেনে বেশ কয়েকটি আগুন লাগার ঘটনার পরে আমরা যাত্রীদের নিরাপত্তার কথা চিন্তা করে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছি। এটা একটা সতর্কতামূলক পদক্ষেপ। রাত ১১ টা থেকে ভোর ৫ টা পর্যন্ত চার্জ দেওয়ার সুইচ বোর্ডগুলিতে বিদ্যুত্‍ সংযোগ বন্ধ থাকবে। কেবলমাত্র আলো ও পাখা চলবে”।

রেলের এক আধিকারিক জানালেন, “অনেক ক্ষেত্রে দেখা যায় যে রাতে যাত্রীরা মোবাইল বা ল্যাপটপ চার্জে বসিয়ে ঘুমিয়ে পড়েন। ফলে চার্জ ১০০ শতাংশ হয়ে যাওয়ার পরেও চার্জ হতে থাকে। এর ফলে অনেক সময় বেশী চার্জ হয়ে যাওয়ার কারণে শর্ট সার্কিট হয়ে যায়। যার জেরে আগুন লাগার সম্ভাবনা অনেকাংশে বেড়ে যায়। তাছাড়া ধূমপান এবং জ্বলনশীল পদার্থ বহন আটকাতে একাধিক পদক্ষেপ নিয়েছে ভারতীয় রেল”।

পশ্চিম রেলের প্রধান জন সংযোগ আধিকারিক সুমিত ঠাকুর জানিয়েছেন যে, “এই ব্যাপারে রেল বোর্ডের সমস্ত জোনগুলিকে নির্দেশ দিয়েছে। আমরা ১৬ মার্চ থেকে তা চালু করে দিয়েছি”।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

- Sponsored -

- Sponsored -

- Sponsored

- Sponsored