Indian Prime Time
True News only ....

তীব্র দাবদাহের জেরে দেশে চালু হয়েছে ‘হিট এড’ প্রকল্প

- sponsored -

- sponsored -

- Sponsored -

- Sponsored -

ব্যুরো নিউজঃ জার্মানিঃ এবার জার্মানিতে ধেয়ে আসছে দাবদাহ। জার্মানির আবহাওয়া দপ্তরের পূর্বাভাসে জানানো হয়েছিল, আজ জার্মানির কোনো কোনো অঞ্চলে ৪০ ডিগ্রী সেলসিয়াস তাপমাত্রা হবে। তবে কয়েক দিন থেকেই এখানে তাপমাত্রা ৩০ ডিগ্রী সেলসিয়াসের মতোই ছিল।

জার্মান মিউনিসিপ্যালিটিজ অ্যাসোসিয়েশন সে দেশের খরার কারণে জার্মানির কিছু কিছু অঞ্চলে জলের ঘাটতির বিষয়ে সতর্ক করেছে। বার্লিনে গৃহহীনদের জন্য ‘হিট এড’ নামে একটি প্রকল্পও চালু হয়েছে। এতে অতি গরমে যারা আক্রান্ত হবেন, তাদের প্রতিদিন সকালবেলা ১০ টা থেকে রাতেরবেলা ৮ টা অবধি ঘরে থেকে বিশ্রাম নেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

- Sponsored -

- Sponsored -

উল্লেখ্য যে, গত কয়েক দিন ধরে দক্ষিণ ইউরোপের দেশগুলি অর্থাৎ গ্রিস, স্পেন, ফ্রান্স, ইতালি, ক্রোয়েশিয়া ও পর্তুগালের বনভূমিতে দাবানলের জেরে দেশের কৃষিকাজ ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। বহু মানুষকে ঘর-বাড়ি ছাড়তে হয়েছে। অর্থাৎ যে পরিমাণ ক্ষতি হচ্ছে তা পুনরুদ্ধার করতে কয়েক বছর সময় লাগবে।

এদিকে গ্রিসের রাজধানী এথেন্সের আশপাশের কিছু অঞ্চল সহ ক্রেটা, ইউবোয়া, লেসবস এবং সামোস দ্বীপপুঞ্জের পর্যটকদের দাবদাহের কারণে সতর্ক করে দেওয়া হয়েছে। গতকাল ফ্রান্সের জনপ্রিয় অবসর কাটানোর এলাকা ডিউন ডু পিলাটের কাছে তেস্তে-দা-বুচ এলাকা থেকে সতর্কতা হিসেবে প্রায় আট হাজার লোককে নিরাপদে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে।

আবার ফ্রান্সের দক্ষিণাঞ্চলের আটলান্টিক উপকূলে বোর্দোর বনাঞ্চলে আগুনের বিষয়ে সতর্ক করা হয়েছে। এই অঞ্চলের ফরাসি ট্রেনগুলো উচ্চ তাপমাত্রার কারণে ধীরগতিতে চলবে বা সময়সূচী থেকে বিলম্বে চলতে পারে বলে জানানো হয়েছে।

এছাড়া এই সপ্তাহে যুক্তরাজ্য প্রচণ্ড দাবদাহের মুখোমুখি হচ্ছে। পর্তুগাল সরকার এই দাবদাহের কারণে আগামী রবিবার অবধি জরুদ্রী অবস্থা জারি করেছে। বনাঞ্চলগুলোতে ক্যাম্প ফায়ার জ্বালানো নিষিদ্ধ করেছে। অন্যদিকে গত শনিবার ন্যাশনাল ক্রাইসিস টিম আসন্ন রেকর্ড তাপমাত্রার পরিপ্রেক্ষিতে তাপমাত্রার সমস্যা নিয়ে আলোচনায় বসেছিল।

 

এই ক্রাইসিস টিম দেশটির কিছু অংশে লাল আবহাওয়া সতর্কতা জারি করেছে। আর এবার মধ্য ও উত্তর ইউরোপের দেশগুলিতেও দাবদাহের প্রকোপ ছড়িয়ে পড়েছে। এর ফলে এই চরমভাবাপন্ন আবহাওয়ার কারণে ইতিমধ্যে শতাধিক ব্যক্তি মারা গিয়েছেন।  

 

- Sponsored -

- Sponsored -

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

- Sponsored -

- Sponsored -

- Sponsored

- Sponsored