Indian Prime Time
True News only ....

তৃণমূলের পতাকা বাঁধা অবস্থায় উদ্ধার ১ কংগ্রেস কর্মীর দেহ

- Sponsored -

- Sponsored -

ADVERTISMENT

ADVERTISMENT

- Sponsored -

- Sponsored -

নিজস্ব সংবাদদাতাঃ উত্তর দিনাজপুরঃ উত্তর দিনাজপুরের রায়গঞ্জের গৌরি গ্রাম পঞ্চায়েতের দক্ষিন বিষ্ণুপুরে এক কংগ্রেস কর্মীর ঝুলন্ত দেহ উদ্ধারকে ঘিরে ব্যাপক উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। মৃতদেহের মুখে তৃণমূলের পতাকা বাঁধা ছিল। মৃত ওই কংগ্রেস কর্মীর নাম দেবেশ বর্মন। বয়স ৫২ বছর।

পরিবার সূত্রের জানা গেছে, প্রতিদিনের মতো বিকেলবেলা দেবেশবাবু সাইকেল নিয়ে চায়ের দোকানে গেলেও আর বাড়ি ফেরেননি। রাতেরবেলা তাকে অনেকেই নাকি সাইকেল নিয়ে বাড়ির পথ ধরতেও দেখেছেন। কিন্তু আজ ভোরে বাড়ি থেকে প্রায় ৫০০ মিটার দূরে একটি মেঠো রাস্তার ধারে লাইলন দড়ি দিয়ে গলায় ফাঁস লাগানো অবস্থায় আম গাছে দেবেশের ঝুলন্ত মৃতদেহ দেখতে পাওয়া যায়। তৃণমূলের দলীয় পতাকা মুখে পেঁচানো অবস্থায় ছিল। এছাড়া বাড়ি যাওয়ার অন্য একটি রাস্তা থেকে দেবেশবাবুর সাইকেলও উদ্ধার হয়।

স্থানীয় বাসিন্দা ও পরিবারের দাবী যে, দেবেশকে খুন করে চোখে ধুলো দেওয়ার জন্য আম গাছে ফাঁস লাগিয়ে দেওয়া হয়েছে। এর পাশাপাশি অনেকে মনে করছেন দুষ্কৃতীরা শাসকদলকে বদনাম করার জন্য এই কাজ করে থাকতে পারে। এই ঘটনার খবর পেয়ে রায়গঞ্জ থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে ঘটনাটির তদন্ত শুরু করেছে।

- Sponsored -

- Sponsored -

জেলা বিজেপি সভাপতি বাসুদেব সরকার জানিয়েছেন, “মৃত ব্যক্তি তাদের সমর্থক”। তবে বাসুদেব বাবুকে জিজ্ঞেস করা হয় পরিবার বলছে কংগ্রেস কর্মী কিন্তু আপনি বিজেপি সমর্থক বলছেন কেন? উত্তরে বাসুদেববাবু বলে দিয়েছেন, “উনি কংগ্রেস কর্মী ছিলেন। বর্তমান রাজনৈতিক পরিস্থিতিতে বিজেপির পক্ষে কাজ করছিলেন”।

এই প্রসঙ্গে তৃণমূলের তরফ থেকে সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করে জেলা তৃণমূল কংগ্রেস সভাপতি কানাইয়ালাল আগরওয়ালা জানিয়ে দিয়েছেন, “এই ঘটনার কথা শুনে পুলিশ প্রশাসনকে দোষী ব্যক্তিদের গ্রেপ্তার করে উপযুক্ত শাস্তির ব্যবস্থা করতে বলা হয়েছে”। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

- Sponsored -

- Sponsored -

- Sponsored

- Sponsored