Indian Prime Time
True News only ....

বাসভবন থেকে বেরোতে গিয়ে ফের বিক্ষোভের মুখে পড়েন উপাচার্য

- sponsored -

- sponsored -

ADVERTISMENT

ADVERTISMENT

নিজস্ব সংবাদদাতাঃ বীরভূমঃ বীরভূমের বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্র আন্দোলনকে ঘিরে চরম বিশৃঙ্খলা তৈরী হয়েছে। উপাচার্য বিদ্যুৎ চক্রবর্তী বাসভবন থেকে বেরোতে গিয়ে পড়ুয়াদের বিক্ষোভের মুখে পড়লে নিরাপত্তারক্ষীদের ডেকে নেন। এরপর বিদ্যুৎ চক্রবর্তীকে ঘেরাও মুক্ত করতে গিয়ে নিরাপত্তারক্ষীরা পড়ুয়াদের সাথে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন।

আজ সকালবেলা থেকে শান্তিনিকেতন দফায় দফায় ধাক্কাধাক্কি, মারামারি ও তুমুল হট্টগোলে অশান্ত হয়ে উঠেছে। সেই সময় উপাচার্যের দিকে কয়েক জন আন্দোলনকারী চেয়ার ছোঁড়েন বলে অভিযোগও ওঠে। তবে তাতে কেউ আহত হননি। বিদ্যুৎ চক্রবর্তী নিরাপত্তারক্ষীদের ঘেরাটোপে বিশ্ববিদ্যালয়ের সেন্ট্রাল হলে যান। কিন্তু সেখানেও একপ্রস্ত ঝামেলা হয়।

পড়ুয়া এবং নিরাপত্তারক্ষীরা বার বার ধাক্কাধাক্কিতে জড়িয়ে পড়েন। আন্দোলনকারী এক পড়ুয়ার কথায়, ‘‘প্রয়োজনে আমরণ অনশন করব। তবে এই উপাচার্যকে না সরানো অবধি আন্দোলন চলবে।’’ কিন্তু ছাত্র আন্দোলন নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ জানাচ্ছেন, ‘‘পড়ুয়াদের দাবীদাওয়া নিয়ে কোনো লিখিত আবেদন পাননি। তাই শুধু আলোচনার মাধ্যমে সমস্যার সমাধান করা সম্ভব হচ্ছে না।’’

- Sponsored -

- Sponsored -

প্রসঙ্গত, প্রায় কুড়ি দিন থেকে পড়ুয়ারা বিদ্যুৎ চক্রবর্তীর বাসভবনের সামনে অবস্থান বিক্ষোভ চালাচ্ছে। আন্দোলনকারীদের দাবী, ‘‘বিশ্বভারতীর উপাচার্যের স্বৈরাচারী মনোভাবের জন্য তাঁকে পদত্যাগ করতে হবে।’’ তারপর বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ বিক্ষোভ ওঠাতে তৎপর হন।

ভারপ্রাপ্ত কর্মসচীব অশোক মাহাতো, জনসংযোগ আধিকারিক মহুয়া বন্দ্যোপাধ্যায়, অধ্যাপক অমিত হাজরা সহ বিশ্বভারতীর সমস্ত বিভাগের বিভাগীয় প্রধান সাংবাদিক বৈঠক করে দাবী করেন, ‘‘দীর্ঘ ২০ দিন ধরে বিদ্যুৎ চক্রবর্তী বাড়িতে আটকে থাকার কারণে বিশ্বভারতীর প্রশাসনিক কাজ ব্যাহত হচ্ছে। সমাবর্তন অনুষ্ঠান সহ বিশ্বভারতীর নানা ছোটখাটো অনুষ্ঠানও করা সম্ভব হচ্ছে না। ফলে বাড়ি থেকে না বেরোতে পারলে বিশ্বভারতীর এই অচল অবস্থাও কাটবে না।’’

- Sponsored -

- Sponsored -

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

- Sponsored -

- Sponsored -

- Sponsored

- Sponsored