Indian Prime Time
True News only ....

বিজেপি কর্মীকে গুলির ঘটনায় উত্তপ্ত ভাটপাড়া

- sponsored -

- sponsored -

- Sponsored -

- Sponsored -

- Sponsored -

- Sponsored -

মিনাক্ষী দাসঃ উত্তর চব্বিশ পরগণাঃ নির্বাচনের আগে থেকে জগদ্দল ভাটপাড়া অশান্তপূর্ণ। এবার আজ দুপুরে ফের ব্যারাকপুরের সাংসদ অর্জুন সিং এর বাড়ির কাছাকাছি জগদ্দলের মেঘনা মোড়ের কাছে শ্যুটআউটের ঘটনা ঘটলো। শ্যুটআউটের ঘটনার পর দুষ্কৃতী বন্দুক ফেলে পালিয়ে যায়।

এই শ্যুটআউটকে কেন্দ্র করে জগদ্দল এলাকায় নতুন করে ব্যাপক অশান্তির সৃষ্টি হয়েছে। এই ঘটনায় জুটমিলের শ্রমিক রাজু সাউ নামে একজন বিজেপি কর্মী গুলিবিদ্ধ হন।
অর্জুন সিং এর উদ্যোগে রাজু সাউ নামে একজন বিজেপি কর্মীকে গুরুতর আহত অবস্থায় দ্রুত কল্যাণীর জেএনএম হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

অর্জুন সিং এই শ্যুটআউট কাণ্ডে তৃণমূলের দিকে অভিযোগ করেছেন। অর্জুন সিং জানান, “তৃণমূল গণতন্ত্রের হত্যা করছে। এই ঘটনায় তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা জড়িত”।

- Sponsored -

- Sponsored -

এই ঘটনার খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হলে পুলিশের সঙ্গে অর্জুন সিং বচসায় জড়িয়ে পড়েন। পাল্টা অর্জুন সিং পুলিশকে হুমকি দিয়ে চড়াও হন। অর্জুন সিং এর দাবী, “এই ঘটনাগুলি পুলিশ করাচ্ছে”। পুলিশ এক ঘণ্টা দেরীতে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হলো কেন তাও জানতে চাওয়া হয়।

অবশ্য এই প্রসঙ্গে স্থানীয় তৃণমূল নেতৃত্ব বলেছেন, “রাজু সাউ ও রাজা আনসারি নামে দুই বন্ধু নিজেদের মধ্যেই ঠাট্টা-তামাশা করতে করতে গুলি চলে”। যদিও অর্জুন সিং রাজা আনসারিকে তৃণমূল কর্মী বলে দাবী করে জানালেন, “তৃণমূল নেতৃত্বরা জোর করে অশান্তি করার চেষ্টা করেছেন”।

ঘটনাটির বিষয়ে জগদ্দলের শাসকদলের বিধায়ক সোমনাথ শ্যাম জানিয়েছেন, “অপরাধী এবং গুলিবিদ্ধ যুবক কেউই আমাদের দলের নয়। পুলিশ তরফে আইনত ব্যবস্থা নেওয়া হোক। কোনো দল না দেখে অপরাধীদের গ্রেপ্তার করা হোক। এছাড়া পুলিশের পক্ষ থেকে রাজা আনসারির তল্লাশি চালানো হচ্ছে”।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

- Sponsored -

- Sponsored -

- Sponsored

- Sponsored