Indian Prime Time
True News only ....

নেট মাধ্যম থেকে উধাও তালিবানি ওয়েবসাইট

- sponsored -

- sponsored -

- Sponsored -

- Sponsored -

ADVERTISMENT

ADVERTISMENT

ব্যুরো নিউজঃ আফগানিস্তানঃ আফগানিস্তানে তালিবানি আধিপত্য কায়েম হওয়ার পর থেকেই সোশ্যাল মিডিয়ায় একের পর এক তালিবানি সাইট নিষিদ্ধ করে দেওয়ার কাজ চলছে। ফেসবুক কর্তৃপক্ষও তালিবানকে জঙ্গি গোষ্ঠী বলে উল্লেখ করে নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে। আর সেই নীতি হোয়াটসঅ্যাপ ও ইনস্টাগ্রামের ক্ষেত্রেও প্রযোজ্য হবে জানিয়েছিল।

এরপর আজ আচমকা ইন্টারনেট থেকে তালিবানের ওয়েবসাইট উধাও হয়ে যায়। ওয়েবসাইটগুলি উর্দু, দারি, পাস্তো, আরবিক এবং ইংরাজি এই পাঁচ ভাষায় চলতো। ইন্টারনেট থেকে এই সবগুলির অস্তিত্বও মুছে গেছে। কিন্তু কি কারণে তালিবানি ওয়েবসাইটগুলির দেখা মিলছে না সেটা এখনো স্পষ্ট নয়।

এই প্রসঙ্গে কারোর বক্তব্য প্রযুক্তিগত কারণ, তো কারোর বক্তব্য ইচ্ছা করেই ওয়েবসাইটগুলি সরিয়ে দেওয়া হয়েছে। তালিবানরা এই ওয়েবসাইটগুলির মাধ্যমে সারা বিশ্বে নিজেদের কার্যকলাপ ও আগাম পরিকল্পনার কথা জানাতো।

- Sponsored -

- Sponsored -

এগুলির দায়িত্বে থাকা ক্লাউডফ্লেয়ারও এই বিষয়ে কোনোরকম মন্তব্য করতে চায়নি। এমনকি তালিবানের সমস্ত হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপও ব্লক করে দেওয়া হয়েছে। ইতিমধ্যেই নেট মাধ্যমে তালিবানের সমর্থনে যে কোনো পোস্ট করা বা মন্তব্য করা নিষিদ্ধ ঘোষণা হয়েছে। তালিবানের সমর্থনে কেউ কোনো পোস্ট করলে শাস্তিমূলক পদক্ষেপ নেওয়ার কথাও বলা হয়েছে।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য মঙ্গলবারই ফেসবুক সংস্থার তরফে জানানো হয়েছিল, তালিবানরা আমেরিকার আইন অনুযায়ী নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন। তাই সংস্থার নিয়ম মেনেই তালিবান সংক্রান্ত যাবতীয় পোস্টের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করা হচ্ছে। তালিবানের নিজস্ব যাবতীয় অ্যাকাউন্টও বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

সেই সময় এও জানানো হয়েছিল যে, তালিবানরা হোয়াটসঅ্যাপেও সক্রিয়। যাবতীয় যোগাযোগ এই প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমেই করে। হোয়াটসঅ্যাপও নিজেদের নীতি পর্যালোচনা করে যথাযথ সিদ্ধান্ত নেবে। যদিও এখনও অবধি হোয়াটসঅ্যাপের তরফে এই বিষয়ে কোনোরকম ঘোষণা করা হয়নি।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

- Sponsored -

- Sponsored -

- Sponsored

- Sponsored