Indian Prime Time
True News only ....

ট্রেড লাইসেন্স পেতে বা নবীকরণ করতে বরাদ্দকৃত মূল্যের থেকেও বেশী চাওয়ার বিরুদ্ধে সরব ব্যবসায়ীরা

- Sponsored -

- Sponsored -

- Sponsored -

- Sponsored -

- Sponsored -

- Sponsored -

স্নেহাশীষ মুখার্জিঃ নদীয়াঃ ট্রেড লাইসেন্স করাতে অতিরিক্ত অর্থ দাবী করার অভিযোগ উঠলো গ্রাম পঞ্চায়েতের বিরুদ্ধে।
নতুন ট্রেড লাইসেন্সের অনুমতি নিতে গিয়ে বা পুরনো লাইসেন্স নবীকরণ করতে গেলে ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে নিয়ম বহির্ভূতভাবে অতিরিক্ত অর্থ দাবী করার অভিযোগ উঠলো নদীয়ার রানাঘাট এক নম্বর ব্লকের অন্তর্গত হবিবপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের বিরুদ্ধে।

প্রসঙ্গত, করোনা আবহে দীর্ঘ লকডাউনের কারণে স্বাভাবিকভাবেই ছোটো-বড়ো সব ধরনের ব্যবসায়ীদের ব্যবসায় অভূতপূর্ব আর্থিক ক্ষতির সম্মুখীন হতে হচ্ছে। ফলে ব্যবসায়ীরা নিজেদের রুটি-রুজির স্বার্থে ভগ্নপ্রায় ব্যবসাকে টিকিয়ে রাখতে বিভিন্ন অর্থলগ্নি সংস্থা ও ব্যাংক মারফত ঋণ নিতে বাধ্য হচ্ছেন। এই পরিস্থিতিতে ব্যবসায়ীদের কাছে ঋণ মঞ্জুর করাতে নতুন ব্যবসায়িক ট্রেড লাইসেন্সের অনুমতি নেওয়া অথবা পুরনো লাইসেন্সের নবীকরণ করাতে গ্রাম পঞ্চায়েতে দ্বারস্থ হওয়া ছাড়া আর কোনো পথ খোলা থাকছে না।

- Sponsored -

- Sponsored -

যার সুযোগ নিয়ে রানাঘাট এক নম্বর ব্লকের অন্তর্গত হবিবপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের বিরুদ্ধে রীতিমতো নিয়ম বহির্ভূতভাবে সরকারী নির্দেশকে অবমাননা করে আবেদনকারী ব্যবসায়ীদের থেকে নতুন ট্রেড লাইসেন্সের অনুমতি দেওয়া ছাড়াও পুরোনো লাইসেন্সের নবীকরণের ক্ষেত্রে এইবার অতিরিক্ত অর্থ দাবী করার অভিযোগ উঠলো। অবশ্য দায়িত্বপ্রাপ্ত পঞ্চায়েত কর্মীদের এই বিষয়ে জানতে গেলে সম্পূর্ণ দায়ভার স্থানীয় গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধান গোপাল ঘোষের উপর চাপিয়ে দিতে দেখা যায়।

কিন্তু হবিবপুর গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধান গোপাল ঘোষকে নিয়মবহির্ভূতভাবে জোরপূর্বক নয়, শুধুমাত্র পঞ্চায়েতের সার্বিক উন্নতি স্বার্থে আবেদনকারীদের কাছে অতিরিক্ত অর্থ দেওয়ার ক্ষেত্রে শুধুমাত্র অনুরোধ করা হয় বলে আক্ষরিক অর্থে সম্পূর্ণ বিষয়টিকে মেনে নিতে দেখা গেলো। আবেদনকারীর সামর্থ্য অনুযায়ী অনেক ক্ষেত্রে তাদের কাছ থেকে নির্ধারিত মূল্যের চাইতে অনেক কম মূল্য ধার্য করার পাশাপাশি যেসব আবেদনকারী আর্থিকভাবে দুর্বল তাদের ক্ষেত্রে সম্পূর্ণ বিনামূল্যে করে দেওয়া হয় বলেও দাবী করেন।

যদিও এই বিষয়ে সংশ্লিষ্ট ব্লকের বিডিও দাবী জানাচ্ছেন যে, এখনো পর্যন্ত কোনো অভিযোগ জমা পড়েনি। তবে পরবর্তীকালে যদি কোনো অভিযোগ আসে তাহলে সম্পূর্ণ বিষয়টি খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা গ্রহণ করবার আশ্বাস দিয়েছেন রানাঘাট এক নম্বর ব্লক সমষ্টি উন্নয়ন আধিকারিক।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

- Sponsored -

- Sponsored -

- Sponsored

- Sponsored