Indian Prime Time
True News only ....

শেষমেশ বাঘ আতঙ্ক থেকে নিস্তার পেল কুলতলির বাসিন্দারা

- Sponsored -

- Sponsored -

- Sponsored -

- Sponsored -

পিঙ্কি পালঃ দক্ষিণ চব্বিশ পরগনাঃ ব্যাঘ্র আতঙ্কে দক্ষিণ চব্বিশ পরগণার কুলতলির বাসিন্দারা অত্যন্ত নাজেহাল হয়ে পড়েছিলেন। কিন্তু অবশেষে আজ ছয়দিন পর বনদপ্তরের হাতে রয়্যাল বেঙ্গল টাইগার ধরা পড়লো। যা দেখতে উৎসুক গ্রামবাসীদের ভিড় উপচে পড়েছে। 

- Sponsored -

- Sponsored -

বন দপ্তর সূত্রে জানা গেছে, প্রথমে বাঘটিকে হোসপাইপ দিয়ে শুরু হয়। পরে পিয়ালি নদীর পাড়ে বাঘের অবস্থান বুঝতে পেরে দুটি ঘুমপাড়ানি গুলি দিয়ে কাবু করা হয়। কিছু সময় পরে বাঘটি নিস্তেজ হয়ে পড়তেই পশু চিকিৎসক ও অন্যান্য উচ্চ পদস্থ কর্মীরা পরীক্ষা করেন।

এরপর কালো কাপড় এবং প্লাস্টিকে করে খাঁচায় মুড়ে ফেলার পর ঢালু জায়গা থেকে নৌকোয় তোলা হয়। তারপর জলপথেই ঝড়খালির বন্যপশু স্বাস্থ্যকেন্দ্রে প্রাথমিক চিকিৎসার জন্য নিয়ে যাওয়া হবে। এরপরে স্বাস্থ্য পরীক্ষার পর জঙ্গলে ছেড়ে দেওয়া হবে।

তবে বাঘ সহ খাঁচায় ভরে নৌকায় তোলার সময় পড়ে গিয়ে মঙ্গল সামন্ত নামে একজন বন সহায়ক কর্মী আহত হয়েছেন। মঙ্গল সামন্ত নামে ওই কর্মী  ১৪ জনের একটি বিশেষ টিমের সদস্য। অবশ্য মঙ্গল সামন্ত নামে ওই কর্মী প্রাথমিক চিকিৎসার পর আপাতত স্থিতিশীলই আছেন।

বনমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক বলেন, “আমি বনদপ্তরের সকল কর্মীদের ধন্যবাদ ও অভিনন্দন জানাই। এখন বাঘটিকে কাবু করার পর খেতে দেওয়া হবে। কারণ পাঁচদিন ধরে বাঘটি খায়নি। খাওয়ার পরে বাঘটির পা, লেজ, মুখ সহ দাঁত পরীক্ষা করে দেখা হবে কোথাও কোনো আঘাত পেয়েছে কি না।

এক একটা রয়্যাল বেঙ্গল টাইগার ওজনে একটু বেশীই হয়। অন্তত ২০০ কেজি তো বটেই। বনদপ্তরকে সত্যিই অভিনন্দন। অবশেষে গ্রামবাসীরা স্বস্তি পেল”।

- Sponsored -

- Sponsored -

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

- Sponsored -

- Sponsored -

- Sponsored

- Sponsored