Indian Prime Time
True News only ....

মুখ্যমন্ত্রীর সভার তিন গুণ বেশী মানুষকে নিয়ে সভা করার বার্তা দেন শুভেন্দু

- sponsored -

- sponsored -

- Sponsored -

- Sponsored -

ADVERTISMENT

ADVERTISMENT

নিজস্ব সংবাদদাতাঃ মেদিনীপুরঃ গতকাল বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী চন্দ্রকোণার সভা থেকে আগামী সোমবার খেজুরিতে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সভার পাল্টা সভার ডাক দিলেন।

এদিন শুভেন্দু অধিকারী ঘোষণা করেন, ‘‘আজ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় খেজুরির ঠাকুরনগরে যা যা বলেছেন, আর দিঘায় গিয়ে যা যা বলবেন তার জবাব ঠিক পরের সোমবার ওই জায়গাতেই দেব। আর মুখ্যমন্ত্রীর সভায় যত মানুষ ছিলেন, আগামী সোমবার তার তিন গুণ মানুষের উপস্থিতিতে সভা হবে। আর ওই সভা তো নন-ভোটারদের সভা! ওই সভা তো সাইকেল বিলির সভা।’’

- Sponsored -

- Sponsored -

এদিকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় শুভেন্দু অধিকারীকে কটাক্ষ করে খেজুরির সভায় জানান, ‘‘সব জবাব মানুষ দেবে। পাশাপাশি খেজুরি বিধানসভা এলাকার কয়েক কিলোমিটার দূরে নন্দীগ্রাম। যা ২০২১ সালের বাংলার বিধানসভা ভোটযুদ্ধের ভরকেন্দ্র। যার এক দিকে তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রার্থী ছিলেন। অন্য দিকে শুভেন্দু অধিকারী ছিলেন। আর ভোটযুদ্ধে শুভেন্দু অধিকারী জয়ী হন। কিন্তু এখনো অবধি ভোটের ফলসংক্রান্ত বিতর্ক নিয়ে হাইকোর্টে মামলা চলছে। ফলে সেই ভোট নিয়েও শুভেন্দু অধিকারীকে খোঁচা দেন। কখনো গদ্দার বলেন, তো কখনো নন্দীগ্রাম আন্দোলনে শুভেন্দু অধিকারীর ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন।’’

এর পাল্টা জবাবে শুভেন্দু অধিকারী বলেন, ‘‘নির্বাচনের আগে আঁচড় লাগার জন্য খেজুরি, তমলুক সহ নন্দীগ্রামের একাধিক তৃণমূল নেতা-কর্মীকে জেলে পাঠানো হয়েছে। আর আমাকে নরেন্দ্র মোদী, অমিত শাহ, জেপি নাড্ডা মমতা বন্দ্যোপাধ্যাকে হারাতে বলেছিলেন। হারিয়েও দেখিয়ে দিয়েছি। ওঁকে প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীও করব। আপনাদের চেয়ে সিপিএম কঠিন জিনিস ছিল। তখনও একা লড়েছি। এখন তো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী করা বাকি।’’

- Sponsored -

- Sponsored -

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

- Sponsored -

- Sponsored -

- Sponsored

- Sponsored